ক্রিকেট > আন্তর্জাতিক ক্রিকেট

'মালিক যদি দলে থাকত, বাবর অনেক সহায়তা পেত’- বললেন আফ্রিদি

পাকিস্তানের বিশ্বকাপ দলে শোয়েব মালিক না থাকায় অসন্তোষ আফ্রিদি।

ডেস্ক রিপোর্ট

১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, দুপুর ১:৪৯ সময়

[ Picsart_22-09-18_13-45-30-270.jpg ]

ক্রিকেটের দুই লম্বা সংস্করণ টেস্ট ও ওয়ানডের পাঠ চুকালেও পাকিস্তানি অলরাউন্ডার শোয়েব মালিক এখনও আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিকে বিদায় বলেননি। বয়স ৪০ পেরিয়ে গেলেও এই সংস্করণে এখনও দারুণ কার্যকর তিনি। গেল বিশ্বকাপেও ‘বুড়ো বয়সে’ ভেলকি দেখিয়ে সেটা প্রমাণ করেছেন তিনি। 

ক্রিকেটের এই ছোট্ট সংস্করণে দীর্ঘ অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে এবার অস্ট্রেলিয়ায় হতে যাওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলার স্বপ্ন দেখেছিলেন শোয়েব মালিক। পাকিস্তান দলে জায়গা পেতে পিএসএলেও পারফরম্যান্স করেছিলেন তিনি। 

কিন্তু, অভিজ্ঞ এই অলরাউন্ডারের স্বপ্ন পূরণ হয়নি। অস্ট্রেলিয়ায় হতে যাওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তান দলে নেই মালিক। দলের জন্য নিজের সর্বোচ্চ চেষ্টা করলেও ৪০ বছর বয়সী এই অলরাউন্ডার ছাড়াই বিশ্বকাপে দল ঘোষণা করেছে পিসিবি।

এশিয়া কাপের ফাইনাল খেলেও শিরোপা ঘরে তুলতে পারেনি পাকিস্তান। বাবর আজমদের এই ব্যর্থতার জন্য মিডল অর্ডারে ব্যাটিংকে দুষছেন অনেকে। তাই মিডল অর্ডারে শক্তি বাড়াতেই হয়তো শোয়েব মালিক সুযোগ পাবেন, এমন সম্ভাবনা দেখা দিয়েছিলো। 

তবে শেষ পর্যন্ত তা না হওয়ায় পিসিবির এবার বিশ্বকাপ দল নিয়ে বেশ সমালোচনা হচ্ছে। সাবেক তারকারা পাকিস্তানের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে স্কোয়াড নিয়ে নিজেদের অসন্তুষ্ট হওয়ার কথা জানিয়েছেন। 

তন্মধ্যে নাম লিখিয়েছেন শহীদ আফ্রিদিও। কিংবদন্তি এই অলরাউন্ডার বাবর আজমদের বিশ্বকাপ দলে শোয়েব মালিকের না থাকায় অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। পাকিস্তানের টিভি চ্যানেল শামা টিভিতে আলোচনায় নিজের অসন্তুষ্টির কথা জানিয়েছেন তিনি।

“সে (শোয়েব মালিক) বিশ্বজুড়ে ক্রিকেট খেলে বেড়ায় এবং সব জায়গায় ভালো খেলে। প্রতিটা ফ্র্যাঞ্চাইজির জন্য শীর্ষ পছন্দের একজন। সে এখনও মারাত্মক রকমের ফিট। এ ছাড়াও মালিক যদি মাঠে থাকে তাহলে বাবরও অনেক সহায়তা পেত। এমনকি মাঠে থাকলেও বাবরের উপকার হতো।’

দল নির্বাচনের আগে নির্বাচকদের শোয়েব মালিকের সঙ্গে যোগাযোগ করা উচিত বলে জানিয়েন আফ্রিদি। লালা খ্যাত সাবেক এই অলরাউন্ডার আরও বলেছেন,

“নির্বাচকদের উচিত ছিল তার সঙ্গে যোগাযোগ করা। দলে তাকে না রাখতে চাইলে পরিকল্পনাটা জানানো দরকার ছিল।”