ক্রিকেট > আন্তর্জাতিক ক্রিকেট

নাসিম শাহর মাঝে নিজেকে খুঁজে পান শন টেইট

নাসিম শাহ আমাকে মনে করিয়ে দিচ্ছে, বললেন টেইট।

ডেস্ক রিপোর্ট

২০ সেপ্টেম্বর ২০২২, দুপুর ১২:২৬ সময়

[ Screenshot_20220920-122252_Gallery.jpg ]

পেস বোলার তৈরিতে বরাবরই অনেক উপরে পাকিস্তান ক্রিকেট। বলা যায়, গতি তারকা তৈরিতে অন্যান্য ক্রিকেট দেশের চেয়ে বেশ এগিয়ে দেশটি। পাকিস্তানে পেস প্রতিভা খুব একটা ঘাটতি কখনোই দেখা যায়নি।

শোয়েব আখতার, ওয়াসিম আকরাম, ওয়াকার ইউনুস থেকে শুরু করে মোহাম্মদ আমির, ওয়াহাব রিয়াজ কিংবা হালের মোহাম্মদ হাসনাইন, হারিস রউফরা এর জ্বলন্ত উদাহরণ। মোহাম্মদ হাসনাইন, হারিস রউফরা গতি দিয়েই আখ্যা পেয়েছেন সম্ভাবনাময়ী ভবিষ্যত তারকা হিসেবে। ঘণ্টায় ১৫০ কিংবা তাঁর বেশি গতিতে টানা বল করে ইতোমধ্যেই মুগ্ধ করেছেন পুরো ক্রিকেট বিশ্বকে।

সম্প্রতি, পাকিস্তান ক্রিকেট পেয়েছে আরেক গতিদানব নাসিম শাহকে। গোটা বিশ্ব এখন মেতে আছে তরুণ এই সেনসেশানকে নিয়ে। 

গত মাসে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ওয়ানডে ক্রিকেটে অভিষেক হয় নাসিম শাহর। ওই সিরিজে তিন ম্যাচেই ১০ উইকেট নিয়ে এই সংস্করণেও শুরুটা হয় দুর্দান্ত।

সীমিত ওভারের ক্রিকেটে অভিষেক সম্প্রতি হলেও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তার পদচারণা প্রায় তিন বছরের। ১৬ বছর বয়সে পাকিস্তানের হয়ে তার টেস্ট অভিষেক। ১৯ বছর বয়সের মধ্যেই খেলে ফেলেছেন ১৩ টেস্ট। সাদা পোশাকে তার হ্যাটট্রিকও আছে বাংলাদেশের বিপক্ষে।

তবে, নাসিম শাহ বেশি আলোড়ন তুলেছেন এবারের এশিয়া কাপে। মহাদেশীয় সেরা হওয়ার লড়াইয়েই তার টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছে। প্রথম ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের বিপক্ষে আগুনে বোলিং করে তিনি তাক লাগিয়ে দেন। 

গতি আর সুইংয়ের মিশেলে টুর্নামেন্টে ৫ ম্যাচ খেলে তার প্রাপ্তি ৭ উইকেট। আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচে ব্যাট হাতে শেষ ওভারে দুটি ছক্কায় ম্যাচ জিতিয়ে পাকিস্তান ক্রিকেটের রূপকথায়ও জায়গা করে নেন তিনি।

পাকিস্তানের তরুণ এ পেসারের মাঝেই নিজেকে খুঁজে পাওয়ার কথা জানিয়েছেন অস্ট্রেলিয়া সাবেক পেসার শন টেইট।  ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরুর আগে নাসিম শাহর ভূয়সী প্রশংসা করে এসব বলেছেন পাক বোলিং কোচ।

“কিছু দিক থেকে নাসিম শাহ আমাকে মনে করিয়ে দিচ্ছে যখন আমি অল্প বয়সী ক্রিকেটার ছিলাম। সে স্বাধীনচেতা। কিন্তু আমি এই বয়সে সে যতটা বুদ্ধিমান, ততটা আমি ছিলাম না। আপনারা সবাই নতুন বল হাতে তার সহজাত সামর্থ্য ও দক্ষতা দেখেছেন, যা চমৎকার।”

আজ (মঙ্গলবার)করাচিতে শুরু হচ্ছে পাকিস্তান বনাম ইংল্যান্ডের সাত ম্যাচের দীর্ঘ টি-টোয়েন্টি সিরিজ। এই সিরিজের পর পাকিস্তান নিউ জিল্যান্ডে যাবে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে, সেখান থেকে সরাসরি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলার জন্য অস্ট্রেলিয়ায় পা রাখবে বাবর আজমরা।