ক্রিকেট > আন্তর্জাতিক ক্রিকেট

‘আমিরের মাঝে ওয়াকারকে দেখছেন ইনজামাম’

নতুন আমিরের বন্দনায় পাকিস্তান।

ডেস্ক রিপোর্ট

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, দুপুর ৩:৩৫ সময়

[ 20220930_152749.jpg ]

করাচিতে রুদ্ধশ্বাস লড়াইয়ে জেতার পর লাহোরেও বেশ রোমাঞ্চ ছড়িয়ে জিতেছে পাকিস্তান। সাত ম্যাচের ঐতিহাসিক টি-টোয়েন্টি সিরিজের পঞ্চম ম্যাচ জিতে স্বাগতিকরা এখন সিরিজ ৩-২ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে। 

লাহোরে স্বল্প রানের পুজিতেও বাবর আজমদের জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন অভিষিক্ত পেসার আমির জামাল। নাসিম শাহর অসুস্থতায় প্রথমবার পাকিস্তানের জার্সিতে আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার সুযোগ পান তিনি।

ম্যাচের শেষ ওভারে তার হাতেই বল তুলে দেন অধিনায়ক বাবর আজম। দারুণ পরিণত বোলিংয়ে অধিনায়কের আস্থার প্রতিদান দেন আমির। 

ওদিন শেষ ওভারে জয়ের জন্য প্রয়োজন ১৫ রান। ক্রিজে সেট ব্যাটার মইন আলি থাকায় সম্ভাবনায় বেশ এগিয়ে ছিল ইংল্যান্ডই।শেষ ওভারের প্রথম ২ বলে কোনো রান নিতে পারেননি মইন। পরের বল বেশ বাইরে করায় হয়ে যায় ওয়াইড। 

তৃতীয় বল জোনে পেয়ে ছক্কা মেরে পঞ্চাশে পৌঁছান বাঁহাতি অলরাউন্ডার। সমীকরণ নেমে আসে ৩ বলে ৮ রানে। এই সময়েই যেন বের হয়ে আসে আমিরের সেরাটা। পরের দুটি বল করেন ইয়র্কার, মইন নিতে পারেন একটি সিঙ্গেল। 

শেষ বলে ডেভিড উইলির সামনে সুযোগ ছিল ছক্কা মেরে টাই করার। কিন্তু আরেকটি দুর্দান্ত ফুল লেংথ ডেলিভারিতে কিছুই করতে পারেননি তিনি। মাত্র ১৪৫ রানের লক্ষ্য দিয়েও জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে স্বাগতিকরা।

জাতীয় দলে জায়গা পাওয়ার আগে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটেও বড় অভিজ্ঞতা ছিলো না আমির জামালের। অভিষেকের আগে মাত্র ১২টি ঘরোয়া টি–টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন ২৬ বছর বয়সী এ পেসার। ইকোনমি রেট ৯.১৭। ব্যাটিংয়ে ১৭৬.৮৬, স্ট্রাইক রেটে ২৩৭ রান। খেলেননি পাকিস্তান সুপার লিগেও। 

তারপরও অভিষিক ম্যাচেই এমন দুর্দান্ত খেলে প্রশংসার জোয়ারে ভাসছেন আমির জামাল। পিএসএলে কোন ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা না থাকলেও স্রেফ ঘরোয়া ক্রিকেট খেলেই এতটা পরিণত বল করায় ডান হাতি এই পেসার মুগ্ধ করেছে সবাইকে। 

এবার আমির জামালের বন্দনায় মেতে উঠলেন কিংবদন্তি ইনজামাম উল হকও। সাবেক পাক ব্যাটারের ২৬ বছর বয়সী এই তারকার মাঝে সাবেক সতীর্থ ওয়াকার ইউনিসকে দেখছেন। পাকিস্তানের এক টিভিতে তিনি বলেছেন,

“প্রথম ম্যাচেই এমন পরিণত বোলিং করা সহজ কাজ না। মইন আলির মতো ব্যাটারকে দমিয়ে রাখার জন্যও আমিরের প্রশংসা প্রাপ্য। শেষ ওভারে তার মাঝে আমি ওয়াকারকেই যেন দেখেছি।”