ক্রিকেট > আন্তর্জাতিক ক্রিকেট

কোহলির রেকর্ড ছুঁয়েও যেখানে পিছিয়ে আছেন বাবর

কোহলির চেয়ে ঢের পিছিয়ে আছেন পাক অধিনায়ক।

ডেস্ক রিপোর্ট

১ অক্টোবর ২০২২, দুপুর ১:৮ সময়

[ Screenshot_20221001-130517_Gallery.jpg ]

এশিয়া কাপের নিদারুণ ব্যর্থতা কাটিয়ে ধীরেধীরে নিজের চেনা ফর্মে ফিরছেন বাবর আজম। ইংল্যান্ডে বিপক্ষে ঘরের মাঠে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে খেলেছিলেন শতরানের একটি অনবদ্য ইনিংস। 

এবার, সিরিজের ষষ্ঠ টি-টোয়েন্টিতেও দলের বিপর্যয়ে হাল ধরেছে তিনি। মইন আলীদের কাছে দল হারলেও পাক অধিনায়ক খেলেছেন ৮৭ রানের চোখধাঁধানো ইনিংস।

গতকাল (শুক্রবার) লাহোরে ফিল সল্টের ঝড়ে ষষ্ঠ টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি ৮ উইকেটে হেরে বসে পাকিস্তান। ঘরের মাঠে স্বাগতিকরা হারলেও দারুণ একটি কীর্তি গড়েছেন অধিনায়ক বাবর আজম।

৫৯ বলে ৭ চার ও ৩ ছয়ে ৮৭ রান করার পথে তিনি সবচেয়ে কম ইনিংস খেলে বিরাট কোহলি তিন হাজার রান করার মাইলফলক ছোঁয়ার রেকর্ড ভাগ বসিয়েছেন।

মাইলফলক ছুঁতে এই ম্যাচে তার প্রয়োজন ছিল ৫২ রান। ৫১ থেকে ষোড়শ ওভারে পেসার রিচার্ড গ্লিসনকে লং-অন দিয়ে ৮৪ মিটার ছক্কায়  কাঙ্ক্ষিত ঠিকানায় পৌঁছেন ২৭ বছর বয়সী এই ব্যাটার।

দুজনই ৮১ ইনিংস খেলে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে তিন হাজারি ক্লাব প্রবেশ করেছেন। 

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে কোহলির সমান ইনিংস খেলে ৩ হাজার রান করলেও একটি জায়গায় সাবেক ভারতীয় অধিনায়কের চেয়ে পিছিয়ে আছেন তিনি। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে তিন হাজারি রানের ক্লাবে ডুকতে কোহলি যেখানে খেলেছেন ২১৬৯ বল। সেখানে বাবর আজমের খেলতে হয়েছে ২৩১৭ বল। 

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে তিন হাজারি ক্লাবে প্রবেশ করা প্রথম পাঁচ ক্রিকেটারের মধ্যে সবচেয়ে কম স্ট্রাইকরেটও বাবর আজমের। ক্রিকেটের ছোট্ট সংস্করণে সবচেয়ে কম ২১৪৯ বল খেলে তিন হাজার রান করেছে রোহিত শর্মা। 

এছাড়া, তিন হাজার রানের এলিট খেলা প্রবেশ করা বাকি দুজন মার্টিন গাপটিল ও পল স্টার্লিংয়ের তিন হাজার রান করতে বল খরচ করেছেন যথাক্রমে ২২০৩ ও ২২২৬ বল।