ফুটবল > ক্লাব ফুটবল

‘নর্থ-লন্ডন ডার্বি’ জিতে শীর্ষস্থান আরও মজবুত করল আর্সেনাল

টটেনহ্যামকেও উড়িয়ে দিয়েছে মিকেল আর্তেতার দল।

ডেস্ক রিপোর্ট

১ অক্টোবর ২০২২, রাত ৮:৩৪ সময়

[ 20221001_203005.jpg ]

সময়টা স্বপ্নের মতোই কাটছে আর্সেনালের। আগের ম্যাচে ব্রেন্টফোর্ডকে উড়িয়ে দিয়ে আন্তর্জাতিক বিরতিতে যায় গানার্সরা। ক্লাব ফুটবলে ফিরে বড় ব্যবধানের জয় পেয়েছে মিকেল আর্তেতার দল। 

ঐতিহ্যবাহী নর্থ লন্ডন ডার্বিতে টটেনহ্যাম হটস্পারকে নিয়ে ছেলেখেলা করে প্রিমিয়ার লিগের শীর্ষস্থান মজবুত করেছে দলটি। সবমিলিয়ে ২০১৩ সালের পর লিগে স্পার্সদের বিপক্ষে টানা তিন ম্যাচ জয় পেল গানার্সরা। ঘরের মাঠে সবশেষ ১২ নর্থ লন্ডন ডার্বির ম্যাচে অপরাজিত থাকল আর্সেনাল। 

আজ (শনিবার) ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচটি ৩-১ গোলে জিতেছে আর্সেনাল। গানার্সদের হয়ে গোল করেছেন থমাস, জেসুস ও জাকা। টটেনহ্যামে হয়ে একমাত্র গোলটি করেছে হ্যারি কেইন। লিগে অষ্টম জয়ের দেখা পেল মিকেল আর্তেতার দল। 

ঘরের মাঠে এদিন বল দখলের লড়াইয়ে এগিয়ে ছিলো আর্সেনাল। গোটা ম্যাচে প্রায় ৬৫ শতাংশ বল নিজেদের দখলে তারা। গোলমুখে শট নেওয়ার ক্ষেত্রেও একচ্ছত্র দাপট ছিলো স্বাগতিকদের। পুরো ম্যাচে ২২টি শট নিয়ে ৯টি লক্ষ্যে রাখে আর্তেতার শিষ্যরা। বিপরীতে, ৭ শটের ৩ টি লক্ষ্যে রাখতে পারে টটেনহ্যাম হটস্পার। 

উত্তেজনায় ঠাসা ম্যাচের কুড়ি মিনিটের সময় এগিয়ে যায় আর্সেনাল। বিন হোয়াইটের পাস থেকেই গোলটি করেন থমাস। ১০ মিনিট পর সমতায় ফিরে টটেনহ্যাম। সফল স্পটকিকে গোল করেন হ্যারি কেইন। 

প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসে প্রথম ফুটবলার হিসেবে প্রতিপক্ষের মাঠে গোলের সেঞ্চুরি করলেন কেইন। আর্সেনালের বিপক্ষে সর্বোচ্চ গোল করার কীর্তিও তার দখলে। প্রথমার্ধের খেলা ১-১ গোলে শেষ হয়। 

বিরতির পর জমে উঠে খেলা। গ্যাব্রিয়েল জেসুসের করা গোলে আবারও এগিয়ে যায় আর্সেনাল। ৬২তম মিনিটে বড় ধাক্কা খায় টটেনহ্যাম । লালকার্ড দেখে ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার এমারসন মাঠ ছাড়লে ১০ জনের দলে পরিণত হয় দলটি। 

এর পাঁচ মিনিট পরই স্পার্সদের জালে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন গ্রায়েন্ট জাকা। গ্যাব্রিয়েল মার্টিনেল্লির পাস থেকে আর্সেনালের জয় নিশ্চিত করে ফেলেন তিনি। ম্যাচের বাকি সময় আর চেষ্টা করে ফিরতে পারেনি কন্তের দল। ফলে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে মিকেল আর্তেতার দল। 

এই জয়ে প্রিমিয়ার লিগের পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থান মজবুত হলো আর্সেনালের। ৯ ম্যাচে গানার্সদের পয়েন্ট ২১। ৭ ম্যাচে ১৭ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছে ম্যান সিটি। ৮ ম্যাচে ১৭ পয়েন্ট নিয়ে তিনে আছে টটেনহ্যাম।