ফিচার

’লিওনেল মেসির এই প্রত্যাবর্তনের গল্প আপনাকে বলতে হবেই’

এক সময়ের স্রেফ আনকোরা ফ্রি-কিক টেকার থেকে ইতিহাসের অন্যতম সেরা ফ্রি-কিক টেকার বনে যাওয়া লিওনেল মেসির এই প্রত্যাবর্তনের গল্প অবশ্যই আপনাকে বলতে হবে।

ডেস্ক রিপোর্ট

২ অক্টোবর ২০২২, দুপুর ১২:৫০ সময়

[ Screenshot_20221002-125009_Gallery.jpg ]

প্রত্যাবর্তন শব্দটির অর্থ কি? সহজ ভাষায় এর অর্থ হচ্ছে 'ফিরে আসা'। কিন্তু অর্থটা যত সহজই হোক না কেন, যে বিষয়ে এটা ব্যবহার করা হয়, সেখানে গভীরভাবে চিন্তা করলে আরো ভিন্ন কিছু খুঁজে পাওয়া যায়। সাধারণত কোনো কিছুর সম্ভাবনা যখন প্রায় শেষ হয়ে যায়, সেখান থেকে ফিরে আসাকেই প্রত্যাবর্তন বলা হয়ে থাকে। 

ফুটবলে ব্যক্তিগত নৈপুণ্যের ক্ষেত্রে 'প্রত্যাবর্তন' শব্দটি সবচেয়ে বেশি ব্যবহার করা হয় সম্ভবত ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে নিয়ে। একসময় ফিফা ব্যালন ডি'অর পুরস্কার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর সঙ্গে ৪-১ ব্যবধানে পিছিয়ে থেকেও পর্তুগিজ মহাতারকা তা ৫-৫ ব্যবধান গুছিয়ে নিয়েছিলেন।

যদিও লিএনেল মেসি এখন আরও দুবার ব্যালন ডি' অর জিতে এগিয়ে আছেন। তবে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর এমন প্রত্যাবর্তন ইতিহাসের অন্যতম সেরা ব্যক্তিগত নৈপুণ্য হিসেবে ধরা হয়।

সেক্ষেত্রে মেসির ফ্রিকিকে ফিরে আসার গল্পটাই সম্ভবত বড্ড অচেনা বলা যায়। এক সময়ে অনেক আনকোরা ফ্রিকিক টেকার থেকে সাতবারের বর্ষসেরা ফুটবলারের ইতিহাসের অন্যতম সেরা ফ্রিকিক টেকার হওয়া কিংবা এক সময় যোজন-যোজনে পিছিয়ে থেকে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীকে এখন ফ্রি-কিকেও ছাড়িয়ে যাওয়া লিওনেল মেসির এমন প্রত্যাবর্তনের গল্পও ইতিহাস থেকে মুছে ফেলার নয়৷

গত কয়েক বছরে ফ্রি-কিকে দৃষ্টিনন্দন গোল করাটা হাতের মোয়া বানিয়ে ফেলেছিলেন মেসি। কিন্তু, বার্সা ছেড়ে পিএসজিতে যোগ দেওয়ার পর তিনিই ফ্রিকিক গোল করাটা যেন ভুলে গিয়েছিলেন। বেশ কয়েকবার আর্জেন্টাইন মহাতারকার শট প্রতিপক্ষের গোলবারের স্পর্শ করেছে বটে, তবে বল জালে-ই জড়ায়নি। হতাশ হতে হয় ৩৫ বছর বয়সী এই তারকাকে।

৪ দিন আগেই আর্জেন্টিনার হয়ে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে জ্যামাইকার বিপক্ষে প্রায় ৪৫১ দিন পর ফ্রিকিক গোলের খরা কাটান মেসি। আর ক্যারিয়ারের ৫৯তম ফ্রিকিক গোলটি করার পর ৬০-এর দেখা পেতে বেশি সময় লাগেনি আর্জেন্টাইন অধিনায়কের।

গতকাল (শনিবার) ফের ফ্রিকিকে লক্ষ্যভেদ করেছেন তিনি। এবার পিএসজির জার্সি গায়েই করলেন অনিন্দ্য সুন্দর এক ফ্রিকিক গোল। ঘরের মাঠে নাইচের বিপক্ষে ম্যাচের ঠিক ২৮তম মিনিটে চোখধাঁধানো গোলটি করে মেসি। ডি-বক্সের ঠিক বাইরে থেকে ফ্রিকিকে ৩৫ বছর তারকার বাঁ পায়ের শটটি রক্ষণ দেয়ালের ওপর দিয়ে কোনাকুনি জালে জড়ায়।

পিএসজির হয়ে এটাই মেসির প্রথম ফ্রি-কিক গোল। সব মিলিয়ে সরাসরি ফ্রি-কিকে সাতবারের বর্ষসেরা ফুটবলার গোল করলেন ৬০টি। ক্লাবের হয়ে ৫১টি আর দেশের হয়ে ৯টি। বর্তমান খেলছেন এমন ফুটবলারদের মধ্যে এটাই সর্বোচ্চ।চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ৫৮ ফ্রিকিক গোল নিয়ে আছেন দুইয়ে।

২০০৯ সালে প্রথমবার সরাসরি ফ্রিকিকে গোলের দেখা পান মেসি। ২০১১ সালে যখন রোনালদোর ফ্রিকিক গোল সংখ্যা ছিল ৩০, তখন মেসির ছিল মাত্র ৫ গোল! মাত্র চার বছর আগেও মেসির ফ্রিকি গোলসংখ্যা ছিল মাত্র ৩২টি। রোনালদোর সেখানে অর্ধশতক!

চার বছরে আর্জেন্টাইন জাদুকর সেই দূরত্ব ঘুচিয়েছেন দারুণভাবে। শুধু কি তাই, রোনালদোকে ছাড়িয়ে এখন বর্তমানে খেলছেন এমন ফুটবলারদের মধ্যেই সর্বোচ্চ ৬০টি ফ্রিকিক গোল মালিক মেসি।

এক সময়ের স্রেফ আনকোরা পেনাল্টি টেকার থেকে ইতিহাসের অন্যতম সেরা পেনাল্টি টেকার বনে যাওয়া লিওনেল মেসির এই প্রত্যাবর্তনের গল্প অবশ্যই আপনাকে বলতে হবে।