ক্রিকেট > বাংলাদেশের ক্রিকেট

‘নিঃসঙ্গ শেরপা’ লিটনের এক ফিফটিতে ৬ কীর্তি

রেকর্ডের বন্যা বয়ে দিলেন ফর্মের তুঙ্গে থাকা এই ব্যাটার।

ডেস্ক রিপোর্ট

৩ নভেম্বর ২০২২, রাত ১২:৪৭ সময়

[ Screenshot_20221103-004242_Gallery.jpg ]

ক্রিকেটের জমজমাট সংস্করণ টি-টোয়েন্টিতে  টপ অর্ডারদের জন্য প্রয়োজন একই সঙ্গে আগ্রাসী ব্যাট করা ও লম্বা ইনিংস খেলা। আর লিটন কুমার দাসের সেই সামর্থ্য আছে তা এখন আর কারো অজানা নয়।

বর্তমানে বাংলাদেশ দলে নিঃসন্দেহে টেস্ট ও ওয়ানডে দলে সেরা ব্যাটার লিটন কুমার। বাংলাদেশ তো বটেই, চলতি বছর বিশ্বের সেরা ব্যাটারদের মধ্যেও একজন তিনি। 

ছোট্ট ক্যারিয়ারে টি-টোয়েন্টিতে ভালো কিছু ইনিংস থাকলেও এখনও নিজের সামর্থ্যের সবটুকু ছাপ রাখতে পারেননি লিটন। অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপে ফর্মের তুঙ্গে থেকে এবার সুযোগ ছিলো নিজের জাত চেনানোর। 

বিশ্বকাপের চলতি আসরে আগের তিন ম্যাচে নিজের সহজাত পজিশন ওপেনিংয়ে ব্যাটিং করার সুযোগ পাননি লিটন। এতে নিজের নামের প্রতি সুবিচারও করতে পারেননি তিনি। আসরে আগের তিন ম্যাচে রান করতে পেরেছেন স্রেফ ৩২ রান। 

অবশেষে, সৌম্য সরকারের ব্যর্থতায় আবারও নিজের পছন্দের ওপেনিং জায়গা পেলেন লিটন। আর দলের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচেই জ্বলে উঠলেন তিনি। শক্তিশালী দল ভারতের বিপক্ষে দেখালেন, কেন তাকে বর্তমান সময়ের অন্যতম সেরা ব্যাটার বলা হয়। 

আজ (বুধবার) অ্যাডিলেড ওভালে টিম ইন্ডিয়ার বোলিং তোপে পড়ে যখন টাইগারদের সব ব্যাটারই ব্যর্থ ছিলেন, সেখানে লিটন ছিলেন যেন ব্যতিক্রম। এক নিঃসঙ্গ শেরপার মতোই একাই লড়েছেন তিনি। বিশাল লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ভারতীয় বোলারদের বেধড়ক পিটিয়ে একটা সময় টাইগারদের জয়ের স্বপ্নও দেখিয়েছিলেন তিনি।

সুপার টুয়েলভে নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে বাংলাদেশের তীরে এসে তরী ডুবেছে বটে, তবে নান্দনিক সব শটের পসরা সাজিয়ে লিটন ঠিকই খেলেছেন দুর্দান্ত ইনিংস। স্রেফ ২১ বলে স্বপ্নের ফর্মে থাকা তারকা এই ব্যাটার করেছেন ফিফটি। এরপর বাকি ৬ বলে করেছে আরও দশ রান। এতে ২৭ বলেই ৭ চার ও ৩ ছয়ে ৬০ রানের ইনিংস খেলে প্যাভিলিয়নে ফিরেন তিনি। 

ভারতের বিপক্ষে নজরকাঁড়া এই ইনিংসে রেকর্ডে বন্যা বয়ে দিয়েছেন লিটন। ২১ বলে ফিফটি করে দেশের হয়ে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে দ্বিতীয় দ্রুততম ফিফ টির রেকর্ড গড়েছেন। দ্রুততম ফিফটি রেকর্ডটি এখন ও মোহাম্মদ আশরাফুলের, ২০০৭ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ২০ বলে।

আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে ভারতের বিপক্ষে তৃতীয় দ্রুততম ফিফটি করলেন লিটন। তাঁর চেয়ে কম বলে ফিফটি আছে অস্ট্রেলিয়া ক্যামেরন গ্রিন (১৯) ও উইন্ডিজের জনসন চার্লসের (২০)। 

এশিয়ান ক্রিকেটারদের মধ্যে টি-টোয়েন্টিতে ভারতের বিপক্ষে দ্রুততম ফিফটির রেকর্ডটি ছিলো কিংবদন্তি কুমার সাঙ্কাকারা দখলে। ২১ বলে ফিফটি করেছিলেন সাবেক লঙ্কান অধিনায়ক। লিটন ২১ বলে ফিফটি করে সেই রেকর্ডের অংশীদার হলেন। ভারতের বিপক্ষে ২২ বলে ফিফটি করেছেন কুশাল পেরেইরা। 

ভারতের বিপক্ষে লিটনের স্ট্রাইক রেট ছিলো ২২২.২২। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে ৫০ ছাড়ানো ইনিংসে, যা বাংলাদেশে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। ২২৫.৯২ স্ট্রাইক রেটে ৫০ এর বেশি রানে রেকর্ড মোহাম্মদ আশরাফুলের দখলে।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের চলতি আসরে এখন পর্যন্ত দ্বিতীয় দ্রুততম ফিফটির রেকর্ড গড়লেন লিটন কুমার দাস। ১৭ বলে ফিফটি করে শীর্ষে আছেন অস্ট্রেলিয়ার মার্কাস স্টয়নিস। ২৫ বলে ফিফটি করেছেন ভারতের সূর্যকুমার যাদব ও নিউজিল্যান্ডের গ্লেন ফিলিপস। 

ভারতের বিপক্ষে অসাধারণ ইনিংস খেলে চলতি বছর তিন সংস্করণ মিলিয়ে বাংলাদেশের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে লিটনের রান হয়ে গেল ১৬৯৩। টাইগারদের হয়ে এক পঞ্জিকাবর্ষে এটাই সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড। 

২০১৮ সালে ৫০ ইনিংস খেলে ৪০.৪১ গড়ে ১৬৫৭ রানের রেকর্ড গড়েছিলেন মুশফিকুর রহিম। ৪২.৩২ গড়ে স্রেফ ৪২ ইনিংস খেলেই মুশফিকুর রহিমকে টপ কে গেলেন লিটন কুমার দাস।