ফুটবল > আন্তর্জাতিক ফুটবল

১৬ বছরের সেই ‘বিস্ময়বালক’কে নেইমারদের সঙ্গে বিশ্বকাপ দলে চেয়েছিলেন রোনালদো

১০৬ বছরের পুরনো রেকর্ড ভেঙে দেওয়া সেই এন্ড্রিক ফেলিপেকে ব্রাজিলের বিশ্বকাপ দলে চেয়েছিলেন কিংবদন্তি এই স্ট্রাইকার।

ডেস্ক রিপোর্ট

৯ নভেম্বর ২০২২, রাত ১২:২৬ সময়

[ 20221109_002151.jpg ]

বয়স এখনও ১৮ পূর্ণ হয়নি। এ সময়ের মধ্যেই যেন হইচই ফেলে দিয়েছেন ব্রাজিলের বিস্ময় বালক এন্ড্রিক ফেলিপে। মাত্র ১৬ বছর বয়সী এ স্ট্রাইকারকে দলে টানতে মরিয়া হয়ে উঠেছে ইউরোপের শীর্ষ ক্লাবগুলি। 

চলতি মৌসুমেই প্রথম পেশাদার ফুটবলে স্বদেশী ক্লাব প্যালমেইরাসের হয়ে অভিষেক হয় এন্ড্রিকের। আর অভিষেক হওয়ার মাত্র কয় দিন পরই দারুণ এক কীর্তি গড়ে ফেলেন তিনি। ব্রাজিলের ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটির ১০৬ বছরের পুরনোর এক রেকর্ড নিজের করেন নেন তিনি। 

গতকাল (সোমবার) ব্রাজিলের বিশ্বকাপ দল ঘোষণা করেন তিতে। নেইমারদের ২৬ সদস্যের সেই বিশ্বকাপ দলটা যেন তারকায় পরিপূর্ণ। আর তারকাঠাসা এই দলে বিস্ময়বালক এন্ড্রিককেও চেয়েছিলেন সর্বকালের অন্যতম সেরা স্ট্রাইকার রোনালদো নাজারিও। 

ব্রাজিলের বিশ্বকাপ স্কোয়াড নিয়ে নিজে মতামত দিতে গিয়ে ‘রোনালদো টিভি’র একটি সরাসরি সম্প্রচারিত অনুষ্ঠানে এমনটাই জানান ‘দ্য ফেনোমেনন' খ্যাত রোনালদো। দুবারের বিশ্বকাপ জেতা এই কিংবদন্তি জানান, এতে ব্রাজিল ও এন্ড্রিকের ভবিষ্যতের জন্যেও বেশ চমৎকার অভিজ্ঞতা হতো।

“আমি যদি দল নির্বাচনের অংশ হতাম, এন্ড্রিককে রাখতাম। আমি মনে করি, সে প্রতিশ্রুতিশীল একজন খেলোয়াড়। এ বয়সেই দারুণ পেশাদার। ওর ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল। এই বিশ্বকাপ দলের অংশ হওয়া ওর জন্য চমৎকার অভিজ্ঞতা হতো। ব্রাজিল দলের ভবিষ্যতের জন্যও।”

মাত্র ১৬ বছর বয়সী এন্ড্রিক ফেলিপেকে কেন তিনি বিশ্বকাপে দেখতে চেয়েছেন তার কারণ বুঝাতে নিজের, নেইমার ও কাকার উদাহরণও টেনে আনেন রোনালদো নাজারিও। সাবেক রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনা স্ট্রাইকার আরও বলেছেন,

‘সব ব্রাজিলিয়ানের দাবির পরও দুঙ্গা ২০১০ বিশ্বকাপে নেইমারকে দলে রাখেননি। এবারও আমি সে রকম কিছুর ঘাটতি দেখছি। তবে ১৯৯৪ সালে পাহেইরা আমাকে নিয়েছিলেন, ২০০২ সালে ফেলিপাও কাকাকে দলে রেখেছিলেন। আমার মনে হয়, ভবিষ্যতের কথা ভেবে এন্ড্রিককে এবারের দলে নেওয়া উচিত ছিল।”

আগামী ১৪ নভেম্বর ব্রাজিলের বিশ্বকাপ ক্যাম্প শুরু হবে। ইতালির তুরিনে জুভেন্টাস ট্রেনিং কমপ্লেক্সে ক্যাম্পে ৫ দিনের অনুশীলন শেষে ১৯ নভেম্বর দোহায় যাবে নেইমাররা। 

আগামী ২৪ নভেম্বর সার্বিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপ যাত্রা শুরু হবে ব্রাজিলের। ‘জি’ গ্রুপে তাদের অন্য দুই সঙ্গী সুইজারল্যান্ড ও ক্যামেরুন।