ক্রিকেট > আন্তর্জাতিক ক্রিকেট

‘শাহীন-নাসিম-হারিসদের পাকিস্তানের ইতিহাসের সেরা বোলার হিসেবে স্মরণ করা হবে'

ফাইনালের আগে পাক বোলারদের নিয়ে ‘সতর্ক’ ইংল্যান্ড।

ডেস্ক রিপোর্ট

১২ নভেম্বর ২০২২, রাত ৯:১০ সময়

[ 20221112_210747.jpg ]

ভয়ংকর গতি আর বলকে ভেতরে বা বাইরে ঢোকানো সুইংয়ের বিষ। সঙ্গে রিভার্স সুইং শিল্পের বাড়তি রসদ—একজন স্বপ্নের ফাস্ট বোলারে আদর্শ বৈশিষ্ট্য এটাই। 

যুগ যুগ ধরে এসব আদর্শ ফাস্ট বোলারেরই সমৃদ্ধ পাকিস্তানের ক্রিকেট। এজন্য এশিয়া দেশটিকে ফাস্ট বোলার তৈরিই কারখানাও বলা হয়ে থাকে। 

এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও পাকিস্তানের ফিনিক্স পাখির মতো জেগে উঠার পেছনে বড় অবদান হচ্ছে ফাস্ট বোলারদের। আসরে সুপার টুয়েলভে ধারাবাহিক ব্যাটিং ব্যর্থতায় ভুগলেও শাহীন শাহ আফ্রিদির নেতৃত্বে ফাস্ট বোলারদের নৈপুণ্যে শেষ চারে উঠেছে দলটি। সেমিফাইনালেও পাক পেসারদের তোপের মুখে পড়েই গুটিয়ে যায় কিউউরা। 

বিশ্বকাপের চলতি আসরে পাকিস্তানের তিন পেসার আছেন দুর্দান্ত ফর্মে। শাহিন শাহ আফ্রিদি প্রতিটি ম্যাচে আতঙ্ক ছড়াচ্ছেন। ইতোমধ্যে তার শিকার সংখ্যা ১০টি। মোহাম্মদ ওয়াসিম সেখানে ৭টি,  হারিস রউফ পেয়ে ছেন ৬টি উইকেট।

তরুণ নাসিম শাহও এখনও সেভাবে জ্বলে উঠতে না পারলেও তার প্রতিভা,গতি আর চমকে দেওয়ার সামর্থ্য নিয়ে সংশয় নেই কারোরই। 

মেলবোর্নের ফাইনালে মাঠে নামার আগে পাকিস্তানি বোলারদের প্রশংসায় ভাসিয়েছে জস বাটলার। ইংলিশ অধিনায়কের মতে, বাবর আজমদের বর্তমান দলে যে পেসাররা খেলছেন তাদের মধ্য থেকেও কেউ না কেউ কিংবদন্তি হবেন। ফাইনালের আগে সংবাদ সম্মেলনে বাটলার বলেছেন,

“হ্যাঁ, অবশ্যই পাকিস্তান দুর্দান্ত একটি দল। আমি মনে করি, তাদের দুর্দান্ত সব ফাস্ট বোলার তৈরির ইতিহাস আছে। আমরা যে দলের বিরুদ্ধে খেলব, তাদেরও আলাদাভাবে দেখছি না। আমি নিশ্চিত, ক্যারিয়ারের শেষ দিকে, যাদের বিরুদ্ধে আমরা খেলতে যাচ্ছি, তাদের কাউকে কাউকে পাকিস্তানের সেরা বোলার হিসেবে স্মরণ করা হবে। দলটি যে ফাইনালে, এর বড় একটি কারণ তারাই (পেসাররা)।”

বিশ্বকাপের আগ মুহূর্তে পাকিস্তানে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলে এসেছে ইংল্যান্ড। সাত ম্যাচের সেই সিরিজও জিতেছে ইংল্যান্ডই। পাকিস্তানের সেই সিরিজ জয়ের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে বিশ্বকাপও জিততে চান বাট লার। 

“আমি কঠিন চ্যালেঞ্জের প্রত্যাশা করছি, যেমনটা আমি আগেও বলেছিলাম। তারা এমন একটি দল, যাদের বিপক্ষে সম্প্রতি আমরা অনেক খেলেছি। দারুণ কিছু ম্যাচে আমাদের মধ্যে হয়েছে। দারুণ উদ্দীপনায় আমরা খেলেছিলাম। আমি নিশ্চিত, আগামীকালও এর ব্যতিক্রম হবে না।”