ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপ

পরিসংখ্যানের পাতায় ডাচ-সেনেগাল লড়াই

রাতে সাদিও মানেকে ছাড়াই ডাচ-পরীক্ষা দিবে সেনেগাল।

ডেস্ক রিপোর্ট

২১ নভেম্বর ২০২২, দুপুর ৪:৫৪ সময়

[ Screenshot_20221121-165159_Gallery.jpg ]

কাতার বিশ্বকাপের ‘এ’ গ্রুপের প্রথম ম্যাচে মাঠে নামছে নেদারল্যান্ডস ও সেনেগাল। বাংলাদেশ সময় আজ (সোমবাত) রাত দশটায় আল থুমামা স্টোডিয়ামে আফ্রিকা ও ইউরোপের দুই জায়ান্টের লড়াইটি অনুষ্ঠিত হবে। 

রাতে দু'দলের হাই-ভোল্টেজ ম্যাচটি মাঠে গড়ার আগে পরিসংখ্যানের পাতায় দুদলের লড়াইটুকুও দেখে নেওয়া যাক:

• বিশ্বকাপে এর আগে ১২ আসরে অংশগ্রহণ করেছে নেদারল্যান্ডস। যেখানে সবমিলিয়ে ডাচরা ৫০ ম্যাচ খেলে ২৭ ম্যাচ জয়ের বিপরীতে ১১ ম্যাচ হেরেছে। ড্র করেছে ১২ ম্যাচ। বিশ্ব মঞ্চে প্রতিপক্ষের জালে ৮৬ গোল করে ডাচরা গোল হজম করেছে ৪৮টি।

• বিশ্বকাপে আগে স্রেফ ২ আসরে অংশগ্রহণ করতে পেরেছে সেনেগাল। এই ২ আসরে ৮ ম্যাচে ৩ জয়ের বিপরীতে ২ ম্যাচ হেরেছে তারা।বাকি ৩ ম্যাচ ড্র হয়েছে। বিশ্বকাপে আফ্রিকার দলটি ১১ গোল করে ১০ গোল হজম করেছে।

• ইতিহাসে এবারই প্রথম ফুটবল খেলায় মুখোমুখি হতে যাচ্ছে নেদারল্যান্ডস ও সেনেগাল। এর আগে কখনও প্রীতি ম্যাচেও একে অপরের বিপক্ষে মাঠে নামেনি দু দল।

• আফ্রিকার দলগুলির বিপক্ষে বিশ্বকাপে কখনোই হারের মুখ দেখেনি নেদারল্যান্ডস। ডাচরা ৪ ম্যাচে ৩টি জিতেছে, ড্র করেছে একট। সেনেগালও বিশ্ব কাপের গ্রুপপর্বে কখনও ইউরোপিয়ান দলের কাছে হারেনি। ৩ ম্যাচের ২ জয়ের বিপরীতে ১টি ড্র করেছে আফ্রিকার সিংহরা। 

• বিশ্বকাপে নিজেদের সবশেষ ৮ আসরে প্রথম ম্যাচে হারেনি নেদারল্যান্ডস। যেখানে ডাচরা ৬ জয়ের বিপরীতে ড্র করেছে ২টি। অন্যদিকে, এর আগে সেনেগাল বিশ্বকাপ দুবার খেলে প্রতিবারই প্রথম ম্যাচ জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে।

• বিশ্বকাপে সেনেগালের কোন ম্যাচেই গোলশূন্য সমতায় শেষ হয়নি। বিশ্ব মঞ্চে আফ্রিকার দেশটি স্রেফ একবারই নিজেদের জাল অক্ষত রাখতে পেরেছে। সেটাও ২০০২ সালে বিশ্বকাপে নিজেদের ইতিহাসের প্রথম ম্যাচে ফ্রান্সের বিপক্ষে ১-০ গোলের জয়ী ম্যাচে। 

• বিশ্বকাপে ট্রাইবেকার ছাড়া নিজেদের সবশেষ ১৪ ম্যাচের ১১টিই জিতেছে নেদারল্যান্ডস। ১৯৯৪ সালের পর কখনোই ফুটবলের বৈশ্বিক আসরে গ্রুপপর্বে হারে নি দলটি।